NewTipsBD.Com
ওয়েবসাইটটি বিক্রি করা হবে। যোগাযোগঃ +৮৮০১৭১৪৫৬৩০৯৫

কৃষিজমি কেনাবেচায় থাকছে না ভ্যাট, হ্রাস মাঝারি ফ্ল্যাটে

এবার বাজেটে ছোট ফ্ল্যাট রেজিস্ট্রেশনে মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট) বাড়ানো হচ্ছে, সামান্য কমছে মাঝারি আয়তনের ফ্ল্যাটের ক্ষেত্রে। তবে বড় আকারের ফ্ল্যাটের রেজিস্ট্রেশনে ভ্যাট হারে পরিবর্তন আসছে না।
বাজেটে কৃষকদের জমি কেনাবেচা এবারও ভ্যাটের বাইরে রাখা হচ্ছে। ‘সমৃদ্ধ আগামীর পথযাত্রায় বাংলাদেশ’ শিরোনামে আগামী বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরের বাজেট প্রস্তাব পেশ করবেন।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, এখন ১১০০ বর্গফুট পর্যন্ত আয়তনের ফ্ল্যাট রেজিস্ট্রেশনের ক্ষেত্রে ১.৫ শতাংশ ও ১১০১ থেকে ১৬০০ বর্গফুট আয়তনের ক্ষেত্রে ২.৫ শতাংশ হারে ভ্যাট রয়েছে। প্রস্তাবিত বাজেটে ১ থেকে ১৬০০ বর্গফুট আয়তনের ফ্ল্যাট রেজিস্ট্রেশনে ২ শতাংশ হারে ভ্যাট আরোপ হচ্ছে। ফলে ১১০০ বর্গফুট পর্যন্ত আয়তনের ফ্ল্যাট রেজিস্ট্রেশনে ভ্যাট বাবদ বেশি অর্থ খরচ হবে, কম খরচ হবে ১১০১ থেকে ১৬০০ বর্গফুট আয়তনের ফ্ল্যাটের ক্ষেত্রে। তবে ১৬০১ বর্গফুট বা তার বেশি আয়তনের ফ্ল্যাট রেজিস্ট্রেশনের ক্ষেত্রে আগের মতোই ৪.৫ শতাংশ হারে ভ্যাট থাকছে।
আবাসন ব্যবসায়ীরা পুরনো ফ্ল্যাট পুনঃ নিবন্ধনে কমহারে ভ্যাট আরোপের প্রস্তাব করেছিলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের কাছে। প্রস্তাবিত বাজেটে যেকোনো আয়তনের পুরনো ফ্ল্যাট পুনঃ নিবন্ধনে ২ শতাংশ হারে ভ্যাট আরোপ করা হচ্ছে বলে জানা গেছে। রিহ্যাবের প্রথম সহসভাপতি লিয়াকত আলী ভূঁইয়া কালের কণ্ঠকে বলেন, এখন পুরনো ফ্ল্যাট পুনঃ নিবন্ধনে নতুন ফ্ল্যাটের মতোই একই হারে ভ্যাট দিতে হয়।
এ ক্ষেত্রে ২ শতাংশ ভ্যাট আরোপ হলে তা খুব একটা খারাপ হবে না।

ফ্ল্যাট কেনার পর ঘর সাজানোর আসবাবপত্র কিনতে গেলে আগামী অর্থবছর বাড়তি চাপে পড়তে হবে ক্রেতাদের। বর্তমানে আসবাবপত্র উৎপাদন পর্যায়ে ভ্যাট আছে ৬ শতাংশ। নতুন অর্থবছর তা বাড়িয়ে ৭ শতাংশ করা হচ্ছে। আর আসবাবপত্র বিপণন পর্যায়ে ৪ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ৫ শতাংশ ভ্যাট আরোপের প্রস্তাব করতে যাচ্ছেন অর্থমন্ত্রী।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানান, বিদ্যমান ভ্যাট আইন, ১৯৯১ অনুযায়ী কৃষিজমিসহ সব ধরনের জমি রেজিস্ট্রেশনের ওপর ভ্যাট বহাল আছে। কিন্তু কৃষি জমি কেনাবেচায় ভ্যাট আদায় করা সম্ভব হয় না। তাই জমি কেনাবেচাকে ভ্যাটের বাইরে রাখার সিদ্ধান্ত হচ্ছে। এ ক্ষেত্রে আইন সংশোধনের উদ্যোগ নেওয়ার কথা বলা হতে পারে।

সংশ্লিষ্টরা জানান, বর্তমানে ইন্টারনেট বা সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করে পণ্য বা সেবা ক্রয়-বিক্রয় অনেক বেড়েছে। এই সেবাকে ‘ভার্চুয়াল বিজনেস’ সংজ্ঞা দেওয়া হচ্ছে বাজেটে। এই ভার্চুয়াল বিজনেস সেবার ওপর ৫ শতাংশ ভ্যাট আরোপ করা হচ্ছে। অনলাইনভিত্তিক যেকোনো পণ্য ও সেবার ক্রয়-বিক্রয় বা হস্তান্তর এ সেবার আওতাভুক্ত হবে। এ ছাড়া তথ্য-প্রযুক্তিনির্ভর সাধারণ সেবার ওপর বর্তমানে থাকা ৪.৫ শতাংশ ভ্যাট বাড়িয়ে ৫ শতাংশ করা হচ্ছে।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানান, স্বাস্থ্যঝুঁকি বিবেচনায় সরকার এনার্জি ড্রিংকসের ব্যবহার নিরুৎসাহিত করতে চায়। এ জন্য এনার্জি ড্রিংকসের ওপর বিদ্যমান সম্পূরক শুল্ক ২৫ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ৩৫ শতাংশ করা হচ্ছে। সিগারেট পেপার ও বিড়ি পেপারের ওপর সম্পূরক শুল্ক ২০ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ২৫ শতাংশ করা হতে পারে। পাটের ব্যবহার বৃদ্ধি ও পরিবেশ সুরক্ষার স্বার্থে পলিথিনের ব্যবহার কমাবে সরকার। এ জন্য সব ধরনের পলিথিন ব্যাগ, প্লাস্টিক ব্যাগ (ওভেন প্লাস্টিক ব্যাগসহ) ও মোড়কসামগ্রীর ওপর ৫ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক আরোপ করা হতে পারে।

বিদ্যুতের ব্যবহার হ্রাস করতে আল্ট্রা ভায়োলেট বা ইনফ্রারেড ল্যাম্প বাদে অন্যান্য ফিলামেন্ট ল্যাম্পের ব্যবহার কমাতে চায় সরকার। এ জন্য এ দুই ধরনের ল্যাম্প বাদে অন্য ফিলামেন্ট ল্যাম্পের ওপর ১০ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক আরোপ করা হচ্ছে।
অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, নতুন অর্থবছরে পরীক্ষামূলকভাবে বৃহৎ করদাতা ইউনিট (ভ্যাট) কার্যালয়ে অনলাইন রিটার্ন দাখিল চালু করা হবে। পাশাপাশি অনলাইনে কর পরিশোধের ব্যবস্থাও এ বছরই চালু হবে। অনলাইন রিটার্ন দাখিল পরিমার্জন করে সব করদাতার ব্যবহার উপযোগী করা হবে। সারা দেশের বড় বড় রিসোর্ট, হোটেল ও অন্যান্য ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের অনলাইনে রিটার্ন দেওয়া বাধ্যতামূলক করা হচ্ছে। এতে রাজস্ব বাড়বে বলে আশা করছে অর্থ মন্ত্রণালয়। তবে যেসব ক্ষুদ্র ও মাঝারি প্রতিষ্ঠান অনলাইনে রিটার্ন দাখিল করতে পারবে না, তারা প্রচলিত পদ্ধতিতে রিটার্ন দিতে পারবে।

NewTipsBD

Add comment

error: Content is protected !!